মানুষের জীবনে বিপদাপদ ও দুর্যোগ- পাপের ফল নাকি মর্যাদা বৃদ্ধি













প্রিয় ভাইয়েরা, মনযোগ দিয়ে শুনুন। মানুষের জীবনে  যে সমস্ত বিপদাপদ আসে তার পেছনে অবশ্যই কিছু কারন আছে।
প্রথম কারণঃ মানুষের নিজের পাপের কারণে। পাপের কারণে মানুষ বিপদাপদে পড়ে। 

দ্বিতীয় কারণঃ মুসলমানের মর্যাদা বাড়ানোর জন্য। অনেক সময় আল্লাহ তার কোন এক বান্দাকে জান্নাতের অনেক উচ্চ মর্যাদা দান করতে চান, কিন্তু সেই বান্দার আমল বা নেককাজ সেই মর্যাদা লাভের জন্য যথেষ্ট হয়না। তখন আল্লাহ তার ফেরেস্তাদের আদেশ করেন সে বান্দার উপর অসংখ্য বিপদ নাযিল করতে। এর মাধ্যমে আল্লাহ সেই বান্দার মর্যাদা বাড়িয়ে দেন। 
কিন্তু আমরা এক্ষেত্রে অনেকেই একটা ভুল করে থাকি। যখনই আমরা  অন্য কারো উপর বিপদ পড়তে দেখি তখন ধারনা করি যে, এ সব তার পাপের ফল। যেমনঃ যদি কারো বাচ্চা প্রতিবন্ধি হয়ে জন্মায় বা মারা যায় বা কেউ কোন দুর্ঘটনায় পঙ্গু হয়, তাহলে আমরা ভাবি, নিশ্চয় সে পাপী এবং আল্লাহ তাকে পাপের শাস্তি দিচ্ছেন। কোথায় আমাদের তাকে সান্তনা দেয়ার কথা, তা না করে এধরনের মন্তব্য করে আমরা বেচারার কষ্ট আরো শতগুনে বাড়িয়ে দেই। পক্ষান্তরে,  নিজের উপর বিপদ আসলে মনে করি আমার মর্যাদা বৃদ্ধির জন্যই তা এসেছে। কিন্তু এটা ঠিক না। আলেমদের মতানুযায়ী- যখন কারো উপর এধরনের বিপদাপদ আসবে, তখন যার উপর তা আসবে সে মনে করবে এটা তার পাপের ফল। যদিও তার মর্যাদা বাড়ানোর জন্য আল্লাহ তা নাযিল করতে পারেন। সে মনে করবে, মহান আল্লাহপাক তাকে পবিত্র করার জন্যই বিপদাপদ দিয়েছেন। মহান আল্লাহ তার কল্যান চান। অর্থাৎ সে আল্লাহর উপর উত্তম ধারনা রাখবে এবং নিজেকে দোষারোপ করবে। আর যদি সেটি হয় তার অন্য কোন দ্বীনি ভাইএর উপর, সে মনে করবে মহান আল্লাহ পাক অমুক ভাইএর মর্যাদা বৃদ্ধি করার জন্যই বিপদাপদে ফেলেছেন। আল্লাহ অমুক ভাইকে উচ্চ মর্যাদা দিতে চান। যদিও সে বিপদ অমুক ভাইএর পাপের কারণে হতে পারে। কিন্তু সবাইকে তার প্রতি সুধারনা পোষন করতে হবে।এটাই সঠিক মত। এতে উভয় ক্ষেত্রেই আল্লাহ এবং অপর মুসলমান ভাইএর প্রতি ভাল ধারনা করা হয়। এখানেই ইসলামের সৌন্দর্য। 
লেখাটি পড়া হলে শেয়ার করুন। 

Leave a Reply