প্লেগ বা মহামারী সম্পর্কিত ৮ টি বিখ্যাত হাদিস

প্লেগ থেকে পলায়ন নিষিদ্ধ।

কুতায়বা (রহঃ) ….. উসামা ইবনু যায়দ রাদিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিত যে, নাবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম প্লেগের আলোচনা প্রসঙ্গে বলেছেন,

এতো আল্লাহর এক আযাবের অবশিষ্টাংশ যা আল্লাহ্ তা’আলা বানু ইসরাইলের এক দলের প্রতি পাঠিয়েছলেন। যখন কোন অঞ্চলে সেই মহামারী দেখা দেয় আর তুমি সেখানে থাক তবে সেখান থেকে বের হয়ে যাবেনা। আর যখন কোন অঞ্চলে তা দেখা দেয় আর সেখানে তুমি না থাক তবে সেখানে তুমি যাবেনা।

বুখারি, মুসলিম, তিরমিজী হাদিস নম্বরঃ ১০৬৫

নিহত হওয়া ছাড়াও সাত প্রকারের শাহাদত রয়েছে

আবদুল্লাহ ইবনু ইউসুফ (রহঃ) … আবূ হুরায়রা (রাঃ) থেকে বর্ণিত, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন,

পাঁচ প্রকার মৃত ব্যাক্তি শহীদঃ মহামারীতে মৃত ব্যাক্তি, পেটের পীড়ায় মৃত ব্যাক্তি, পানিতে ডুবে মৃত ব্যাক্তি, ধ্বংসস্তূপে চাপা পড়ে মৃত ব্যাক্তি এবং যে আল্লাহর পথে শহীদ হল, সে ব্যাক্তি।

সহীহ বুখারী (ইফাঃ) / হাদিস নাম্বার: 2633

মহামারী মুমিনের জন্য রহমতস্বরুপ

মূসা ইবনু ইস্‌মাঈল (রহঃ) … নাবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম সহধর্মিণী আয়িশা (রাঃ) হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, আমি রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম কে প্লেগ সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করলে, উত্তরে তিনি বলেলেন,

তা একটি আযাব বিশেষ। আল্লাহ তা’আলা তাঁর বান্দাদের মধ্যে যাদের প্রতি ইচ্ছা করেন তাদের উপর তা প্রেরন করেন। আর আল্লাহ তা’আলা তাঁর মুমিন বান্দাগনের উপর তা (আযাবের সুরতে) রহমত স্বরূপ করে দিয়েছেন। কোন ব্যাক্তি যখন প্লেগাক্রান্ত স্থানে সাওয়াবের আশায় ধৈর্য ধরে অবস্থান করে এবং তার অন্তরে দৃঢ় বিশ্বাস থাকে যে, আল্লাহ তাকদীরে যা লিখে রেখেছেন তাই হবে। তবে সে একজন শহীদের সমান সওয়াব পাবে।

সহীহ বুখারী (ইফাঃ) / হাদিস নাম্বার: 3228

প্লেগ ও দাজ্জালের প্রবেশ থেকে মদীনা সুরক্ষিত

ইয়াহইয়া ইবনু ইয়াহইয়া (রহঃ) … আবূ হুরায়রা (রাঃ) থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেনঃ

মদিনার প্রবেশ পথে ফিরিশতাগণ প্রহরারত। সেখানে প্লেগ ও দাজ্জাল প্রবেশ করতে পারবে না।

সহীহ মুসলিম (ইফাঃ) / হাদিস নাম্বার: 3220

শহীদদের প্রকারভেদ

উক্ত রাবী রাদিয়াল্লাহু আনহু হতে বর্ণিত, তিনি বলেন, একদা রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বললেন,

রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বললেন, আল্লাহ তা’আলা তার নিয়্যত অনুযায়ী তাকে শাহাদাতের সওয়াব দিয়ে দিয়েছেন। আচ্ছা, তোমরা শাহাদাত কাকে মনে কর? তারা বললেন, আল্লাহর রাস্তায় মৃত্যুবরণ করাকে। রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম) বললেন, আল্লাহর রাস্তায় মৃত্যুবরণ করা ব্যতীতও আরো সাত প্রকারের শাহাদাত আছে-

১. প্লেগ রোগে মৃত ব্যক্তি শহীদ

২. পেটের পীড়ায় মৃত ব্যক্তি শহীদ

৩. পানিতে ডুবে মৃত ব্যক্তি শহীদ

৪. প্রাচীর চাপায় মৃত ব্যক্তি শহীদ

৫. আভ্যন্তরীণ বিষ ফোঁড়ায় মৃত ব্যক্তি শহীদ

৬. অগ্নিদাহে মৃত ব্যক্তি শহীদ

৭. প্রসবকালে মৃত রমনী শহীদ।

[সহীহ। ইবন মাজাহ ২৮০৩]

অশ্লীলতার শাস্তি হল মহামারী/প্লেগ

আবদুল্লাহ ইবনে উমার (রাঃ) থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম আমাদের দিকে এগিয়ে এসে বলেনঃ

হে মুহাজিরগণ! তোমরা পাঁচটি বিষয়ে পরীক্ষার সম্মুখীন হবে।তবে আমি আল্লাহর কাছে আশ্রয় প্রার্থনা করছি যেন তোমরা তার সম্মুখীন না হও। যখন কোন জাতির মধ্যে প্রকাশ্যে অশ্লীলতা ছড়িয়ে পড়ে তখন সেখানে মহামারী আকারে প্লেগরোগের প্রাদুর্ভাব হয়। তাছাড়া এমন সব ব্যাধির উদ্ভব হয়, যা পূর্বেকার লোকেদের মধ্যে কখনো দেখা যায়নি। যখন কোন জাতি ওযন ও পরিমাপে কারচুপি করে তখন তাদের উপর নেমে আসে দুর্ভিক্ষ, কঠিন বিপদ-মুসীবত এবং যাকাত আদায় করে না তখন আসমান থেকে বৃষ্টি বর্ষণ বন্ধ করে দেয়া হয়। যদি ভূ-পৃষ্ঠি চতুস্পদ জন্তু ও নির্বাক প্রাণী না থাকতো তাহলে আর কখনো বৃষ্টিপাত হতো না। যখন কোন জাতি আল্লাহ ও তাঁর রাসূলের অঙ্গীকার ভঙ্গ করে, তখন আল্লাহ তাদের উপর তাদের বিজাতীয় দুশমনকে ক্ষমতাশীন করেন এবং সে তাদের সহায়-সম্পদ সবকিছু কেড়ে নেয়। যখন তোমাদের শাসকবর্গ আল্লাহর কিতাব মোতাবেক মীমাংসা করে না এবং আল্লাহর নাযিলকৃত বিধানকে গ্রহণ করে না, তখন আল্লাহ তাদের পরস্পরের মধ্যে যুদ্ধ বাঁধিয়ে দেন।

সুনানে ইবনে মাজাহ / হাদিস নাম্বার: 4019

মহামারীর মৃত্যু হচ্ছে প্রত্যেকটি মুসলিম ব্যক্তির জন্যে শাহাদত

হামিদ ইবনু উমার আল বাকরাভী (রহঃ) … হাফসা বিনত সীরীন (রহঃ) থেকে বর্ণনা করেন যে, তিনি বলেছেন, আনাস ইবনু মালিক (রাঃ) আমাকে জিজ্ঞাসা করলেন, ইয়াহইয়া ইবনু আবূ আমরা কিসে মারা গেলেন? আমি বললাম, প্লেগগ্রস্থ হয়ে। তিনি (হাফসা) বলেন, তখন তিনি (আনাস) বললেন, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেনঃ

প্লেগ হচ্ছে প্রত্যেকটি মুসলিম ব্যক্তির জন্যে শাহাদত স্বরূপ।

সহীহ মুসলিম (ইফাঃ) / হাদিস নাম্বার: 4791

মহামারী কেয়ামতের আলামত

হুমাইদী (রহঃ) … আউফ ইবনু মালিক (রাঃ) থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, আমি তাবুক যুদ্ধে রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর নিকট এলাম। তিনি তখন একটি চর্ম নির্মিত তাবুতে ছিলেন। রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বললেন,

কিয়ামতের পূর্বের ছয়টি আলামত গণনা করে রাখো। আমার মৃত্যু, তারপর বায়তুল মুকাদ্দাস বিজয়, তারপরও তোমাদের মাঝে ঘটবে মহামারী, বকরীর পালের মহামারীর মত, সম্পদের প্রাচুর্য, এমনকি এক ব্যাক্তিকে একশ’ দ্বীনার দেওয়া সত্ত্বেও সে অসন্তুষ্ট থাকবে। তারপর এমন এক ফিতনা আসবে যা আরবের প্রতি ঘরে প্রবেশ করবে। তারপর যুদ্ধ বিরতির চুক্তি-যা তোমাদের ও রোমকদের (খৃষ্টানদের) মধ্যে সম্পাদিত হবে। এরপর তারা বিশ্বাসঘাতকতা করবে এবং আশিটি পতাকা উত্তোলন করে তোমাদের মোকাবিলায় আসবে; প্রত্যেক পতাকা তলে বার হাজার সৈন্য দল থাকবে।

সহীহ বুখারী (ইফাঃ) / হাদিস নাম্বার: 2952

আমাদের লেখা পাঠান 

  • জিলহজের (Jil Hajj) প্রথম দশদিনের ফযীলত এবং আমল
    ( Jil Hajj) মহান আল্লাহ পাক কুরআনে সূরা ফজর এরশাদ করেছেন শপথ রাত্রির। রাইসুল তাফসির হযরত ইবনে আব্বাস রাদিয়াল্লাহু তা’আলা আনহু হতে এসেছে যে, এখানে ১০ রাত্রি বলতে জিলহজের প্রথম দশদিনের কথা বোঝানো হয়েছে। ( তাফসিরে ইবনে কাসীর) রাসূল সাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম ইরশাদ করেছেন যে, বছরের শ্রেষ্ঠ বছরের মধ্যে সর্বশ্রেষ্ঠ হচ্ছে এই জিলহজের দশদিন। (বুখারী)…
  • মৌনতা অবলম্বন করতে শিখুন
    Learn Quran Online একজন মানুষের জবান বা মুখ তার জীবনের খুব গুরুত্বপূর্ণ একটি অংশ। জবান বা মুখের মাধ্যমেই একজন মুমিন তার জীবনে সর্বপ্রথম কালিমার ব্যাপারে সাক্ষ্য দিয়ে থাকে, যা প্রত্যক্ষ ঈমানের পরিচায়ক। কিন্তু এই সামান্য মুখ আবার তেমনি মানুষকে জাহান্নামের দিকে নিয়ে যায়। আমাদের প্রিয় নবী ও রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাই সাল্লাম বলেছেনঃ যে ব্যক্তি তার…
  • মদিনার একদল গবেষক কর্তৃক কোভিড-১৯ (COVID-19) এর প্রতিষেধক আবিষ্কারের দাবি
    সৌদি আরবের মদিনায় অবস্থিত তাইবা বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল মেডিকেল গবেষক দাবি করেছেন যে, তারা কোভিড-১৯ (COVID-19) এর রোগীদের সফল চিকিৎসা দিতে সক্ষম হয়েছেন। সেই সাথে তাদের দেয়া এই পথ্য এই ভাইরাস রোধ করতেও সক্ষম। তাদের গবেষণালব্ধ পথ্যে বিশেষভাবে ব্যবহার করা হয় কালোজিরা যাকে নাইজেলা স্যাটিভা (nigella sativa), বলা হয়ে থাকে। এটা করা হয়েছে রাসুল (সাঃ) এর…
  • অন্তরের পরিচ্ছন্নতা বিষয়ক পরবর্তী ২০ টি হাদিস
    হাদিস নং ২১। ইসলাম কী? হযরত আমর ইবনে আবসাহ হতে বর্ণিত, একবার এক ব্যক্তি রাসুল (সাঃ) এর নিকট এসে প্রশ্ন করলো, ” হে আল্লাহর রাসুল! ইসলাম কী? ” রাসুল (সাঃ) উত্তর বললেনঃ ইসলাম হল এই যে, তুমি তোমার ক্বলবকে সম্পুর্ণভাবে আল্লাহর কাছে সমর্পণ করবে, আর অন্য মুসলিম ভাই তোমার হাত ও মুখ থেকে নিরাপদে থাকবে।…
  • অন্তরের পরিচ্ছন্নতা বিষয়ক ২০ টি হাদিস
    হাদিস নং-১| দ্বীন রক্ষাকারীর মর্যাদা নু‘মান ইবনু বশীর (রাযি.) হতে বর্ণিত। তিনি বলেনঃ আমি আল্লাহর রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম -কে বলতে শুনেছি যে, ‘হালাল স্পষ্ট এবং হারামও স্পষ্ট। আর এ দু’য়ের মাঝে রয়েছে বহু সন্দেহজনক বিষয়- যা অনেকেই জানে না। যে ব্যক্তি সেই সন্দেহজনক বিষয়সমূহ হতে বেঁচে থাকবে, সে তার দ্বীন ও মর্যাদা রক্ষা করতে…

Leave a Reply