ঈমানের সাথে মৃত্যু হওয়াই সবচেয়ে বড় সাফল্য

ঈমান একজন মানুষের জন্য সবচেয়ে বড় সম্পদ, আর ঈমানের সাথে মৃত্যু হওয়াই সবচেয়ে বড় সাফল্য। কিন্তু একজন মুসলিম এর ঈমান নসীব হলেও সে  ঈমান নিয়ে আল্লাহর কাছে যেতে পারবে কিনা তা নিয়ে সদাশংকিত থাকতে হয়। আমাদের পূর্ববর্তীদের মধ্যে যেমন বার্সিসা অথবা বালাম বাউড়ার ঘটনা আমরা জানি, যারা সারাজীবন বুযুর্গী জীবনযাপন করলেও ঈমানহারা হয়ে মৃত্যুবরণ করেছিল।আবার তেমনি ১০০ জন নিরাপরাধ মানুষের হত্যাকারী ও তার জীবনের অন্তিম মুহুর্তে ঈমান নিয়ে মৃত্যুবরণ করে জান্নাতী হয়ে যায়।
 সারাজীবন ইসলামের উপর থাকা সত্ত্বেও জীবনের অন্তিম মুহুর্তে ঈমান হারা হয়ে মৃত্যুর কারণ হিসেবে ওলামাগণ কিছু কারণ উল্লেখ করেছেন। তার মধ্যে একটি কারণ হল নিজের ঈমানের ব্যাপারে  নিশ্চিন্ত হয়ে যাওয়া এবং ঈমানে অটল থাকার জন্য মহান আল্লাহতালার কাছে দুয়া না করা। আরেকটা কারণ হল, বাহিরের আমল দেখে নেককার মনে হলেও তার ভিতরে অর্থাৎ অন্তরে এমন কোন সমস্যা ছিল যা  বাহির থেকে বোঝা যায়নি। সেই সমস্যার প্রভাবেই শেষ পর্যন্ত ঈমান নিয়ে মৃত্যু নসীব হয়না। আর আল্লাহপাক হচ্ছেন সর্বশ্রেষ্ঠ বিচারক। আল্লাহপাক যুলুমকারী নন।
তাই প্রত্যেক মুমিনের উচিত নিজের ঈমান নিয়ে ফিকির করা। বাহ্যিক আমলের সাথে সাথে নিজের আখলাক্ব কে সুন্দর করতে মেহনত করা। এইজন্য রাসুল (সাঃ) আমাদের একটা সুন্দর দুয়া শিখিয়ে দিয়েছেন। দুয়াটি হলঃ
বাহিরের আমলের সাথে সাথে আখলাক্ব সুন্দর করার মাসনুন দুয়া
 اللهم اجعل سريرتي خيرا من علانيتي و اجعل علانيتي صالحة. اللهم إني أسألك من صالح ما تؤتي الناس من المال و الاهل و الولد غير الضال و لا المضل
উচ্চারণঃ
আল্লাহুম্মাজআল সারিরাতী খাইরা মিন আলানিয়্যাতি ওয়াজআল আলানিয়্যাতি স্বলিহা।আল্লাহুম্মা ইন্নি আসআলুকা মিন স্বলিহি মা তু’তিন্নাসা মিনাল মালি ওয়াল আহলি ওয়াল ওয়ালাদি গইর‍্য দ্বল্লি ওয়ালাল মুদ্বিল্ল।
অনুবাদঃ
‘ হে আল্লাহ, আমার বাহিরের আমলের চেয়ে আমার ভিতরটাকে উত্তম করে দিন। হে আল্লাহ, আমি আপনার কাছে উত্তম পরিবার, সম্পদ এবং সন্তানাদি চাচ্ছি যা আপনি আপনার বান্দাদেরকে দিয়েছেন, যা পথভ্রষ্ট নয় এবং পথভ্রষ্টকারী ও নয়।’ ( সুনান আত তিরমিযী, ৩৫৮৬)
আল্লাহ ওয়াযযাল সবথেকে ভাল জানেন।
books.matzar.com 

Leave a Reply